1. [email protected] : admins :
  2. [email protected] : Kanon Badsha : Kanon Badsha
  3. [email protected] : Nayeem Sajal : Nayeem Sajal
  4. [email protected] : News Editir : News Editir
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০১:৫৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করার হুমকি ইউএনও’র পুলিশকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশে গণমাধ্যমকে সতর্ক থাকার অনুরোধ গরিব ও অসহায় মানুষদের লাখপতি করাই যার নেশা! ঈদের জামাতের জননিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে প্রতি মসজিদ এবং ঈদগাহ কমিটির সাথে কথা বলে অতিরিক্ত ভলেন্টিয়ার রেখেছেন বাড্ডা থানা পুলিশ বিপুল পরিমান বিদেশী মদসহ এক মাদককারবারী’কে গ্রেফতার করেছে দাগনভূঁঞা থানা পুলিশ দিয়াবাড়ির গরুর হাট প্রবেশ পথে ভূয়া স্টিকার লাগিয়ে পিকআপ ড্রাইবারদের চাঁদাবাজির ঘটনায় গ্রেফতার: ৪ কোরবানির পশু চাহিদার চেয়ে বেশি, দাম চড়া আ.লীগ নেতা গ্যাস বাবুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি কোকাকোলা বিজ্ঞাপন-অমি নয়, বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করেছেন অভিনেতা জীবন নিজেই! চিত্রনায়িকা সুনেত্রা আর নেই

শান্তি সমাবেশ ও পদযাত্রায় উত্তপ্ত রাজনীতি

  • আপডেট সময় বুধবার, ১৯ জুলাই, ২০২৩

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজনীতির ময়দান। একদিকে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ অন্য দিকে একদফা দাবিতে পদযাত্রা, বড় দুই দলের এই দুই কর্মসূচিকে ঘিরে অশান্ত হতে শুরু করেছে রাজধানীসহ গোটা দেশ।

মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে একজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন আরও অন্তত অর্ধশতাধিক।

রাজধানীর মিরপুরে বিএনপির পদযাত্রা এবং আওয়ামী লীগের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ ঘিরে তুমুল সংঘর্ষ হয়েছে। মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।

খাগড়াছড়িতে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে পুলিশরাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়ছে। সংঘর্ষে উভয়ের অন্তত শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এ সময় ৮টি মোটর সাইকেলে অগ্নিসংযোগ করা হয়। পৌরসভা ভবনে ব্যাপক ভাংচুর করা হয়। ৩ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলা এ তাণ্ডবে পুলিশ ছিল নিস্ত্রিয়।

বগুড়ায় এক দফা দাবিতে পদযাত্রা ও বিক্ষোভ মিছিলে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা-কর্মীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ, পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট, কাঁদানে গ্যাসের শেল ও শটগানের গুলি ছুড়েছে। পুলিশের ছোড়া টিয়ারশেলে ইয়াকুবিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাধিক ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এদের মধ্যে অন্তত ৩২ জনকে বগুড়ার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

কিশোরগঞ্জে পদযাত্রায় পুলিশ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাসুদ সুমনসহ ১০ নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এছাড়াও দুই সাংবাদিকসহ বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

জয়পুরহাটে আওয়ামী লীগের সঙ্গে বিএনপির সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পুলিশসহ উভয় দলের অন্তত ৩৭ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) বিকেলে পৌরশহরের রেলগেট এলাকায় পাল্টাপাল্টি হামলা চালায় দুদল।

ফেনীতে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশ ও সাংবাদিকসহ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন।বিকেল ৪টা থেকে ৫টা পর্যন্ত শহরের ট্রাংক রোড ও ইসলামপুর রোডে দফায় দফায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

মানিকগঞ্জে জেলা বিএনপি আয়োজিত পদযাত্রায় পুলিশের বাঁধার মুখে পড়ে। পরে বাধ্য হয়ে বেউথা এলাকার মোড়ে জেলা পরিষদের মার্কেটের সামনে পথ সভা করতে বাধ্য হয় বিএনপি। মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতা ও সাধারণ সম্পাদক এসএ জিন্নাহ কবীরের নেতৃত্বে সহাস্রাধিক নেতাকর্মী নিয়ে পৌর এলাকর বেউথা নদীর শেষ প্রাপ্ত থেকে পদযাত্রা শুরু করে।

পদযাত্রাটি ব্রিজ অতিক্রম করে শহরের দিকে রওয়ানা হলে বেউথা মোড়ে জেলা পরিষদের মার্কেটের সামনে সদর থানার ওসির নেতৃত্বে একদল পুলিশ পদযাত্রায় বাধা প্রদান করেন। এ সময় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এসএ জিন্নাহ কবীরের সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়। কিন্তু পুলিশ অনড় অবস্থানে থাকার কারণে বিএনপি সেখানেই অবস্থান নিয়ে পথসভা করে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আজকের পদযাত্রা শুধু পদযাত্রায় এটি ‘বিজয় যাত্রা’। মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) রাজধানীর গাবতলীতে বিএনপির সরকার পতনের ‘এক দফা’ দাবি আদায়ের পদযাত্রা কর্মসূচির পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, এই দেশের মানুষ সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। তাই এখনি পদত্যাগ করতে হবে।

ফখরুল বলেন, আবারো পরিষ্কার করে বলছি অবৈধ শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচন নয়। কারণ গতকাল ঢাকায় একটি নির্বাচনের তামাশা দেখেছি। সেখানে আওয়ামী লীগের থিংক ট্যাংক ও হেভিওয়েট একজন প্রার্থী হয়েছিলেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন হিরো আলম। সেখানে দেখলাম ভোটকেন্দ্রে কোনো ভোটার নাই। হিরো আলম কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নয় তার সঙ্গে ভোট করতে যেয়ে তাকে মেরে ভোটকেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়। পুলিশ প্রশাসন সেটি দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখেছেন।

তিনি বলেন, এই সমস্ত তামাশা করে আর কোনো লাভ হবে না। ২০১৪ সালে ১৫৪ আসনে বিনা ভোটে জয়লাভ করেছেন। ২০১৮ সালের দিনের ভোট রাতে করেছেন। এই ধরনের ভোটার হতে দেওয়া হবে না। আজকে যে আন্দোলন শুরু হয়েছে এই আন্দোলনের মাধ্যমে এক দফা দাবি আদায় করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংবিধান থেকে একচুলও নড়বে না সরকার। তিনি বলেন, বিএনপি মার্কা তত্ত্বাবধায়ক আমরা চাই না। বিএনপি মার্কা নির্বাচনকালীন সরকার আমরা মানি না। সংবিধানে যা আছে, সে অনুযায়ী সব করবো। এর বাইরে আমরা একচুলও নড়বো না। মারামারি হুমকিতেও কাজ হবে না। আওয়ামী লীগ কারো কাছে মাথানত করবে না।

মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) রাজধানীর রমনায় আওয়ামী লীগের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক হবে না। সরকারের পদত্যাগ হবে না। শেখ হাসিনা দায়িত্বে থেকে নির্বাচনকালীন সরকারে থাকবেন। মিথ্যাচার করে কোনো লাভ হবে না। আমেরিকান ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের আমরা বলেছি, আমরা শান্তি চাই। নির্বাচনের সময়ও শান্তি চাই।

সরকারের পদত্যাগসহ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে বিএনপির একদফা আন্দোলনের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ফখরুল বলেছেন, তাদের পদযাত্রা না কি জয়যাত্রা, বিজয়যাত্রা। আসলে তাদের পদযাত্রা পরাজয় যাত্রা। তাদের পতনযাত্রা শুরু হয়ে গেছে।

তিনি প্রশ্ন করে বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন কী দিয়ে গেছে? তত্ত্বাবধায়ক দিছে? সরকারের পদত্যাগ, না কি শেখ হাসিনার পদত্যাগ? তারা দেবার কে? বিএনপি আসলে পেয়েছে একটা হাসের ডিম, ঘোড়ার ডিম। আমেরিকানরা এসেছে, বিএনপি মনে করেছে তারা বলবে- সংলাপ করতেই হবে। আসলে তারাও দিয়ে গেছে ঘোড়ার ডিম।

বিএনপিকে শয়তানের দল দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের শয়তানের দল বিএনপি। বাংলাদেশের আরও ৩৬টা শয়তানের দলের মিল হয়েছে। তারা না কি রাষ্ট্র মেরামতে নেমেছে। মেরামত তো শেখ হাসিনা করেছেন। আপানার তো চুরি করেছেন, খাম্বা দিয়েছেন। আর শেখ হাসিনা দিয়েছেন শতভাগ বিদ্যুৎ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2023 Somoyexpress.News
Theme Customized By BreakingNews